2
ডালিমঃ
ইংরেজি নাম - Pomegranate, বৈজ্ঞানিক নাম - punica granatum এবং পরিবার - Lythraceae
ডালিম উষ্ণমণ্ডলের বা উষ্ণ অঞ্চলের একটি অতি প্রিয় ফল৷ বাগান আকারে এর চাষের প্রমাণ না থাকলেও প্রায় বাড়িতেই এর গাছ দেখা যায়৷ শোভাবর্ধনের জন্যও অনেকে ডালিম গাছ লাগিয়ে থাকেন৷

Benefits of Dalim or Pomegranate
Benefits of Dalim or Pomegranate


ডালিমের ফলের তুলনায় এর ভক্ষনযোগ্য অংশ খুবই কম৷ ভক্ষণযোগ্য অংশের প্রতি ১০০ গ্রামে ৭৮ ভাগ পানি,  ১৪.৫ ভাগ শ্বেতসার, ৫.১ ভাগ আঁশ, ১.৫ ভাগ আমিষ, ০.৭ ভাগ খনিজ পদার্থ,  ০.১ ভাগ স্নেহ,  ৭০ মি.গ্রা ফসফরাস, ১৪ মি.গ্রা. অক্সালিক এসিড, ১৪ মি.গ্রা, ভিটামিন সি, ১২ মি.গ্রা. ম্যাগনেসিয়াম,  ১০ মি.গ্রা. ক্যালসিয়াম, ০.৩ মি.গ্রা রাইবোফ্লাভিন ও ০.৩ মি.গ্রা. নায়াসিন  থাকে৷ ডালিমের রস কুষ্ঠ রোগের উপকারে আসে৷ আযুর্বেদ চিকিৎসা শাস্ত্রেও এর ব্যবহার সর্বজনস্বীকৃত৷

উদ্ভিদতত্ত্বঃ
ডালিম গাছ ছোট লিকলিকে, উচ্চতা ৩-৫ মিটার৷  পাতা চিকন ও দীর্ঘ৷ ফুল লাল বর্ণের হয়, কোন কোন গাছে শুধুমাত্র পুংপুষ্প দেখা যায়৷ আবার কোন কোন গাছে পুং ও স্ত্রী উভয় প্রকার ফুল দেখা যায়৷ ফল বেরী প্রকৃতির ও প্রায় গোলাকার৷ ডালিম গাছ পত্রপতনশীল বা চিরহরিৎ হতে দেখা যায়৷

বাংলাদেশে ডালিমের জাত প্রকরণ নিয়ে কোন কাজ হয়নি৷ এর কোন উন্নত জাতও বাংলাদেশে নাই৷ পৃথিবীর উল্লেখযোগ্য জাতের মধ্যে স্প্যানিশ রুবি ( Spanish ruby ), পেপার সেল ( Paper cell ), মাসকেট রেড, ওয়ান্ডারফুল প্রভৃতির নাম উল্লেখযোগ্য৷

ডালিমের উপকারীতাঃ
* ডালিম বার্ধক্য রোধে সাহায্য করে।

* যকৃতের পুনর্গঠনে ও যকৃৎ রক্ষায় ডালিমের রস কার্যকর।

* ডালিমে রয়েছে ভাইরাস প্রতিরোধ ক্ষমতা।

* সাধারণ সর্দি-কাশিতে ডালিম খুবই কার্যকরী।

* বদহজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

* ডায়রিয়াতে ডালিমের খোসা চিবিয়ে খেলে তা প্রতিরোধ হয়।

* ডালিমের বিচির দ্বারা তৈরিকৃত তেলে ব্যাকটেরিয়া প্রতিহত করার মত উপাদান রয়েছে।

* দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

* ডালিমের শুকনো মূলের ছাল ও কাণ্ড ফিতাকৃমি সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্যবহৃত হয়।

* ডালিমের শরবত শীতকালে বলবর্ধক হিসেবে কাজ করে।

* ডালিমে অধিকমাত্রায় পলিফেনলস ( Polyphenols) থাকায় অ্যালার্জির জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়াকে বাধা দেয়।

* ডালিমের ফাইটোনিউট্রিন্ট ( Phytoneutriant ) ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ( Anti-oxidant ) শরীরের জেনেটিক উপাদান রক্ষায় সক্ষম।

* ডালিমের রস বমি ( Vomit ) বন্ধ করে এবং অনবরত বা বারবার বমির ফলে শরীরে যে ক্লান্তি আসে তা দূর করে।

* দাঁত ও মুখের রোগ ( Teeth and mouth disease ) প্রতিরোধে সহায়তা করে।

* ডালিমের আয়রন, ফসফরাস, ক্যালসিয়াম ও ফোলেট শরীরে রক্ত তৈরিতে সহায়তা করে।

* ডালিমে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ( Anti-oxidant ) রয়েছে, যা বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে।

* ডালিম রক্তের তারল্য ( Liquidity of blood ) ঠিক রেখে হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি ( Risk of heart disease and stoke ) কমায়।

* এর রস ত্বক পরিষ্কার করে এতে উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করে।

Post a Comment

Unknown said... January 15, 2014 at 11:54 AM

ধন্যবাদ . সুন্দর পোস্ট দেয়ার জন্য

Dr. Md. Belayet Hossen said... January 27, 2014 at 1:38 AM

আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ...

 
Top