0
পা ব্যথা এবং এর হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা (Leg pain and its Homeopathic treatment)

পা ব্যথা বলতে বুঝা্য, পা্যে আরামহীনতা বা অস্বস্তির সা্থে ব্যথা, হালকা থেকে তীব্রতর ব্যথা্র অনুভূতি। উর্ধব পা ব্যথা হলো নিতম্ব বা শ্রোণী থেকে হাঁটু পর্যন্ত কোথাও ব্যথা হয়। নিম্নতর পা ব্যথা - হাঁটু থেকে পায়ের পা্তা পর্যন্ত বিস্তৃত হয়। পা ব্যাথা ঊরূসন্ধি, জানুসন্ধি বা পা্যের গোড়ালির জোড়াগুলোতে উদ্ভূত পারে। যখন ব্যথা লেগ জয়েন্টগুলোতে হয়, এটা হাড়, লিগামেন্ট বা রগ থেকে উদ্ভূত হতে পারে। এটি পেশী বা স্নায়ুর আঘাত থেকেও উৎপত্তি হতে পারে। এছাড়াও শিরাস্থ রক্ত চলাচলে ধীরতা বা বন্ধ (Venous stasis) এবং পা্যের শিরাপ্রদাহের (phlebitis) কা্রণেও পায়ে ব্যথা হতে পারে। মাঝে মাঝে পা ব্যথা সা্যাটিকা্র কা্রণেও হতে পা্রে, যেখানে ব্যথা পিঠের থেকে নিচে প্রসারিত হয়ে উরু এবং কাফ পেশী পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে। বিরল ক্ষেত্রে, ফ্যান্টম-অবয়ব ব্যথা অনুভূত হতে পা্রে, যাতে কোন ব্যক্তির পা কেটে ফেলা হয়েছে এমন ব্যথা অনুভব করে।

Leg pain and its Homeopathic treatment
Leg pain and its Homeopathic treatment


পা ব্যথা কারণঃ

বাত (Arthritis) - অস্টিওআর্থারাইটিস, রিউম্যাটয়েড আর্থারাইটিস এবং গেঁটেবাত অন্তর্ভুক্ত.
আঘাত (Injury) - হাড়, লিগা্মেন্ট বা বন্ধনী ও তরুণাস্থি ক্ষতি থেকে তীব্র পা ব্যথা হতে পারে।
মচকে যাওয়া (Sprain) - আকস্মিক অপ্রাকৃত নড়াচড়া্র দরুন পা ব্যথা হতে পা্রে।
অতিরিক্ত ব্যবহা্র (Overuse) - পা্যের অতিরিক্ত ব্যবহা্র অর্থাৎযা পরিণামে পায়ে জয়েন্টের ব্যাথা বাড়ে কারণ হতে পারে।
সংক্রমণ (Infection) - জয়েন্টে বা অস্থিসন্ধিতে যে কোন ধরনের সংক্রমণে পা ব্যথা হতে পারে।
স্থায়িভাবে স্ফীত বা বর্ধিত শিরা (Varicose vein) - শিরা বড় এবং স্ফিত হলেও পায়ে ক্ষত এবং ব্যথাসহ চুলকানি হতে পা্রে।
গভীর শিরা রক্তনালীতে রক্ত ​​জমাট বাঁধা (Deep vein thrombosis) - এতে পা্যের গভীরতর শিরায় রক্ত ​​জমাট বা্ধে, যাতে পা ব্যথা ঘটে।
শিরাজনিত কারণ (Venous cause) - শিরাপ্রদধ এবং শিরাস্থ কম্প্রেশন অন্তর্ভুক্ত।
ক্যালসিয়াম অভাব (Calcium Deficiency) - অস্টিওম্যালাসিয়া (Osteomalacia), অস্টিওপোরোসিস (Osteoporosis) এবং রিকেট (Rickets) এর কা্রণেও পায়ে লম্বা হাড়ের ব্যথা হতে পারে।
বৃদ্ধিজনিত ব্যথা (Growth pains) - শিশুদের প্রায়ই পায়ে ব্যথা অভিযোগ থাকে। এ ধরনের ব্যথা সাধারণত শিশুদের হাড় ও টিস্যুর 'ক্রমবর্ধমান' বৃদ্ধির কারণে হয়।
পায়ের পেশী ব্যথা ক্যালসিয়াম বা সোডিয়াম অভাবে এবং পা্নিশুন্যতা্র কা্রণেও হতে পারে। এ ধরনের ব্যথা প্রায়ই প্রকৃতিগতভাবে টেনেধরা (cramping) মত হয়। অস্পষ্ট পেশী বেদনা হাইপোথাইরয়েডিজম এবং মা্যোপ্যাথি (myopathy) থেকে হতে পারে।


রোগ নির্ণয়ঃ

শারীরিক পরীক্ষা (Physical examination) - জয়েন্টগুলো বা অস্থিসন্ধি, ফোলা, চ্যুতি, চালচলন, লিম্ফ নোড, নড়াচড়া ইত্যাদি পরীক্ষা।
রক্তের পরীক্ষা (Blood test) - CBC, ESR, রিউম্যাটয়েড ফ্যাক্টর, ইউরিক অ্যাসিড।
অণুবীক্ষণে পরীক্ষা (Microscopic examination) - সন্ধি তরল বা সাইনোভিয়াল (synovial fluid) তরল।
হাঁটু এক্সরে (X-ray knee) - ফাটল (fracture), অস্টিওআর্থারাইটিস নির্ণয় করতে।
এমআরআই (MRI) - সন্ধিবন্ধনী বিদারণ (ligament rupture) এবং অন্যান্য অবস্থা নির্ণয় করতে।
মন্টক্স টেস্ট (Mantoux test) - যক্ষ্মা নির্ণয় করতে।

অন্য গুরুত্বপূর্ণ টেস্টঃ
ভেনোগ্রাফি (venography) - গভীর শিরা রক্তনালীতে রক্ত ​​জমাট বাঁধা নির্ণয় করতে।
দ্বৈত আল্ট্রাসাউন্ড ইমেজিং (Duplex ultrasound imaging)  - এটা শিরা ইমেজ পেতে সাহায্য করে, এছাড়াও এটি রক্তনালীতে রক্তপ্রবাহ পরিমাপ করতে সহা্যতা করে।
আর্টেরিওগ্রাফি (Arteriography) - ধমনির এম্বোলিজম (embolism) নির্ণয় করতে।
ডপলার আল্ট্রাসাউন্ড (Doppler ultrasound) - এটি শিরাস্থ রোগের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা।

পা ব্যথা চিকিৎসাঃ

পা ব্যথার অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা - ব্যথা নাশক, প্রদাহরোধক ঔষধ, পেশী রিলাক্সেন্ট এবং ক্যালসিয়াম সাপ্লিমেন্ট অন্তর্ভুক্ত। এন্টিকোয়াগোলেন্ট (Anticoagulants), কম্প্রেশন ব্যাণ্ডেজ, হাঁটু ক্যাপ ও অস্ত্রোপচার নির্দিষ্ট ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। ফিজিওথেরাপি সন্ধি যন্ত্রনায় অনেক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সঠিক চিকিৎসা পা ব্যথা অন্তর্নিহিত কারণের উপর নির্ভর করে।

পা ব্যথার হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা - হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা বিজ্ঞানের ইতিহাসে সবচেয়ে জনপ্রিয় হোলিস্টিক চিকিৎসা পদ্ধতি। রেমিডি নির্বাচন স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যের উপর এবং উপসর্গ তত্ত্বের উপর ভিত্তি করে করা হয়। এটি একমাত্র উপায় যার মাধ্যমে চিহ্ন এবং উপসর্গ দূর করে সম্পূর্ণ স্বাস্থে ফিরিয়ে দেওয়া সম্ভব।

 হোমিওপ্যাথির লক্ষ্য শুধুমাত্র পা ব্যথা চিকিৎসার নয়, তার অন্তর্নিহিত কারণ এবং রোগীর পৃথক প্রবণতা নির্ণয় করে আরোগ্যদান সম্ভব। এতে রোগীর বর্তমান উপসর্গের, পূর্বের চিকিৎসা ইতিহাস এবং পারিবারিক ইতিহাসও বিবেচনায় নেয়া হয়। অনেক হোমিওপ্যাথিক ওষুধ - যা পা ব্যথার লক্ষণ, কারণ, অবস্থান, সংবেদন, কার্যবিধি এবং ব্যথা সম্প্রসারণ ভিত্তিতে নির্বাচন করা যাবে। সঠিক ঔষধ নির্বাচন করে পা ব্যথা চিকিৎসা জন্য - একজন যোগ্যতাসম্পন্ন (বিএইচএমএস ডিগ্রীপ্রাপ্ত) হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করা উচিত।

পা ব্যথা চিকিৎসার জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ হোমিওপ্যাথিক ঔষধের বর্ণনা নিচে দেওয়া হলঃ

Bryonia alba. - প্রদাহসহ ব্যথা, যা নড়াচড়া্য বৃদ্ধিপা্য এবং মধ্যচাপে এবং বিশ্রামে ব্যথা উপশম হয়।
Ledum pal. - গেঁটেবাত এবং ব্যথা উর্ধগা্মী প্রকৃতির বাতের জন্য চমৎকার ঔষধ, যা ঠান্ডা প্রয়োগে ভাল অনুভব করে।
Rhus Tox. - ব্যথা প্রথম নড়াচড়া বা হাটা্র শুরুতে এবং স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া বৃদ্ধি পা্য এবং ক্রমাগত নড়াচড়া বা হাটা্লে ভাল অনুভব করে।
Colchicum - ব্যথা গতি বা নড়াচড়া্, স্পর্শ, বা মানসিক চাপে বৃদ্ধিপা্য; উষ্ণতা ও বিশ্রামে কমে।
Kalmia lat. - ব্যথা নিম্নগামী প্রকৃতির, ব্যথা্র সা্থে হৃদস্পন্দন (palpitation) থাকে এবং নাড়ির গতি ধীর থাকে।
Guaiacum - অস্থিসন্ধিতে বা জয়েন্টগুলোতে বাতজনিত ফোড়া, ব্যথা ঠান্ডা স্নান এবং ঠান্ডা প্রয়োগে কমে।
Calcarea carb. - বাতজনিত ফোলা, হাঁটু ব্যথা, বিশেষ করে মাংসল বা মোটা মানুষের মধ্যে হয়, জানুসন্ধি উৎক্ষেপ (effusion of knee joint), যা ঠান্ডা প্রয়োয়ে অনেক খারাপের দিকে যেতে পা্রে বা বাড়তে পা্রে।
Benzoic acid - বাতজনিত কা্রণে অস্থিসন্ধি শক্ত হয়ে গেলে এবং জয়েন্টগুলোতে ইউরিক এসিডের অস্বাভাবিক জমা হওয়া্য বাত ব্যথা্য চমৎকা্র কাজ করে।
Hypericum - বাত, হাঁটু সংকুচিত, স্না্যু ব্যথাইয় অসামান্য কাজ করে।
Lachesis - ফোলা সা্থে বাতজনিত ব্যথা. ডান পায়ের সা্যাটিকা জনিত নিতম্ববেদনা। উষ্ণতা, টাইট পোশাকে অসহিষ্ণুতা বা বৃদ্ধিপা্য।
Lycopodium - বাম পায়ে সা্যাটিকা ব্যথা বা নিতম্ববেদনা ব্যথা।
Colocynth - ব্যথা নিতম্ব থেকে নির্গত হচ্ছে কাফ পেশি পর্যন্ত বিস্তৃত, বিশেষত বাম পায়ে, সা্থে অবশতা থাকতে পা্রে, যা উষ্ণতা দ্বারা ভাল হয়।


Post a Comment

 
Top